Categories
জেলা পরিচিতি

কোন জেলা কিসের জন্য বিখ্যাত জানেন কি ?

 

বাংলাদেশ! নিজ দেশে বসবাস করলেও অনেকেই জানে না বাংলাদেশের ঐতিহ্য সম্পর্কে। খাবারে-ভ্রমণে ওপার বাংলার কোনে কোনে ছড়িয়ে আছে ইতিহাস৷ পাওয়া যেতে পারে বাংলাদেশ সম্পর্কে ভালো কিছু ধারনা৷ এখানে জানতে পারবেন কোন জেলা কোন খাবারের জন্য, স্থান ও কিসের জন্য বিখ্যাত।

০১) নাটোর: কাঁচাগোল্লা, বনলতা সেন।

০২) রাজশাহী: আম, রাজশাহী সিল্ক শাড়ী।

০৩) টাঙ্গাইল: চমচম, টাংগাইল শাড়ি।

০৪) দিনাজপুর: লিচু, কাটারিভোগ চাল, চিড়া, পাপড়।

০৫) বগুড়া: দই।

০৬) ঢাকা: বেনারসী শাড়ি, বাকরখানি।

০৭) কুমিল্লা: রসমালাই, খদ্দর (খাদী)।

০৮) চট্রগ্রাম: মেজবান, শুটকি।

০৯) খাগড়াছড়ি: হলুদ।

১০) বরিশাল: আমড়া।

১১) খুলনা: সুন্দরবন, সন্দেশ, নারিকেল, গলদা চিংড়ি।

১২) সিলেট:  কমলালেবু, চা, সাতকড়ার আচার।

১৩) নোয়াখালী: নারকেল নাড়, ম্যাড়া পিঠা।

১৪) রংপুর: তামাক, ইক্ষু।

১৫) গাইবান্ধা: রসমঞ্জরী।

১৬) চাঁপাইনবাবগঞ্জ: আম, শিবগঞ্জের চমচম, কলাইয়ের রুটি।

১৭) পাবনা: ঘি, লুঙ্গি, পাগলাগারদ।

১৮) সিরাজগঞ্জ: পানিতোয়া, ধানসিড়িঁর দই।

১৯) গাজীপুর: কাঁঠাল, পেয়ারা।

২০) ময়মনসিংহ: মুক্তা-গাছার মন্ডা।

২১) কিশোরগঞ্জ: বালিশ মিষ্টি।

২২) জামালপুর: ছানার পোলাও, ছানার পায়েস।

২৩) শেরপুর: ছানার পায়েস, ছানার চপ।

২৪) মুন্সীগঞ্জ: ভাগ্যকুলের মিষ্টি।

২৫) নেত্রকোনা: বালিশ মিষ্টি।

২৬) ফরিদপুর: খেজুরের গুড়।

২৭) রাজবাড়ী: চমচম, খেজুরের গুড়।

২৮) মাদারীপুর: খেজুর গুড়, রসগোল্লা।

২৯) সাতক্ষীরা: সন্দেশ।

৩০) বাগেরহাট: চিংড়ি, ষাটগম্বুজ মসজিদ, সুপারি।

৩১) যশোর: খই, খেজুর গুড়, জামতলার মিষ্টি।

৩২) মাগুরা: রসমালাই।

৩৩) নড়াইল: পেড়ো সন্দেশ, খেজুর গুড়, খেজুর রস।

৩৪) কুষ্টিয়া: তিলের খাজা, কুলফি আইসক্রিম।

৩৫) মেহেরপুর: মিষ্টি সাবিত্রি, রসকদম্ব।

৩৬) চুয়াডাঙ্গা: পান, তামাক, ভুট্টা।

৩৭) ঝালকাঠি: লবন, আটা।

৩৮) ভোলা: নারিকেল, মহিষের দুধের দই।

৩৯) পটুয়াখালী: কুয়াকাটা।

৪০) পিরোজপুর: পেয়ারা, নারিকেল, সুপারি, আমড়া।

৪১) নরসিংদী: সাগর কলা।

৪২) নারায়নগঞ্জ: আইভি আফা।

৪৩) নওগাঁ: চাল, সন্দেশ।

৪৪) মানিকগঞ্জ: খেজুর গুড়।

৪৫) রাঙ্গামাটি: আনারস, কাঠাল, কলা।

৪৬) কক্সবাজার: মিষ্টিপান।

৪৭) বান্দরবান: হিল জুস, তামাক।

৪৮) ফেনী: মহিশের দুধের ঘি, সেগুন কাঠ, খন্ডলেরমিষ্টি।

৪৯) লক্ষীপুর: সুপারি।

৫০) চাঁদপুর: ইলিশ।

৫১) ব্রাহ্মণবাড়িয়া: তালের বড়া, ছানামুখী, রসমালাই।

৫২) মৌলভিবাজার: ম্যানেজার স্টোরের রসগোল্লা।

Categories
জেলা পরিচিতি

এক নজরে রাজবাড়ী জেলা

এক নজরে রাজবাড়ী জেলা

 ভৌগলিক 
ভৌগলিক অবসহান পূর্বে মানিকগঞ্জ, পশ্চিমে কুষ্টিয়া, উত্তরে পাবনা, দক্ষিনে ফরিদপুর ও মাগুরা জেলা ।
আয়তন ১১১৮.৮ বর্গ কিঃ মিঃ
নির্বাচনী এলাকা ২ টি
মোট ভোটার সংখ্যা ৭,২৮,৫৫১ জন
পুরুষ

মহিলা

৩,৭০,৫১৭ জন

৩,৫৮,০৩৪ জন

উপজেলা ৫ টি
থানা থানা  ৫ টি ( পুলিশ ফাঁড়ি-৫ টি, হাইওয়ে পুলিশ ফাঁড়ি-২ টি)
পৌরসভা ৩ টি
ইউনিয়ন ৪২ টি
গ্রাম ১০৩৬ টি
মৌজা ৮৫৮ টি
নদী ৬ টি (পদ্মা, গড়াই, চন্দনা, চত্রা, হড়াই ও কুমার)
বদ্ধ জলমহাল (২০ একরের উর্দ্ধে) ১৭ টি
বদ্ধ জলমহাল (অনূর্ধ ২০ একর) ২১ টি
উন্মুক্ত জলমহাল ২ টি
হাট বাজার ৮৬ টি
মোট জমি ১,১২,৭৭৬ হেক্টর
মোট আবাদী জমি ৭৭,৭৪৭ হেক্টর
ইউনিয়ন ভূমি অফিস ৪৩ টি
পাকা রাস্তা ১,১২৯  কিঃমিঃ
কাঁচা রাস্তা ২,২৩০  কিঃমিঃ
আশ্রয়ন প্রকল্প ৬ টি
আবাসন প্রকল্প ৫ টি (২ টি বাস্তবায়নাধীন)
আদর্শগ্রাম ১০ টি
খেয়াঘাট/নৌকা ঘাট ৯ টি
জনসংখ্যাভিত্তিক
জনসংখ্যা ১০,১৫,৫১৯ জন
পুরুষ ৫,২৪,৬২৪ জন
মহিলা ৪,৯০,৮৯৫ জন
জনসংখ্যার ঘনত্ব ৯০৮
শিশু মৃত্যুর হার ১৮
কৃষি বিষয়ক  
কৃষি পরিবার ১,৮১,৪৩৯ টি
পেশা (কৃষি কাজের উপর নির্ভরশীল) ৭৩ %  কৃষি নির্ভর
মোট জমি ১,১২,৭৭৬ হেক্টর
মোট আবাদী জমি ৭৭,৭৪৭ হেক্টর
ফসলের নিবিড়তা ২৩৫ %
শিক্ষা সংক্রান্ত
মহাবিদ্যালয় ২৫ টি ( সরকারী ২ টি)
মাধ্যমিক বিদ্যালয় ১৪০ টি ( সরকারী ৪ টি )
ভর্তির পর প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনের হার ৭৬.১%
প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনের পর মাধ্যমিক স্তরে ভর্তির হার ১০০%
 প্রাথমিক বিদ্যালয় ৪১৯ টি
কমিউনিটি প্রাথমিক  বিদ্যালয় ২১ টি
মাদ্রাসা (সকল) ১২২ টি
কারিগরী ইনস্টিটিউট ৬ টি
সরকারী শিশু সদন ১ টি
সাক্ষরতার হার  ৫২.৩ %
সরকারী গণগ্রন্থাগার ১ টি
পাবলিক লাইব্রেরী ৪ টি
মসজিদ ১২৩৫ টি
মন্দির ১০৫ টি
গীর্জা ৪ টি
স্বাস্থ্য বিষয়ক  
সরকারি হাসপাতাল ১ টি
উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ৩ টি
উপ-স্বাস্থ্য কেন্দ্র ২৮ টি
পরিবার কল্যাণ কেন্দ্র ২৪ টি
প্রাথমিক শিশু উন্নয়ন সূচক ৬৩.৬
নিরাপদ পানি ব্যবহারকারীর শতকরা পরিমান ১০০%
নিরাপদ ধাত্রী সেবা গ্রহণকারীর শতকরা  পরিমান ৫৪.৯
৫ বছরের নীচে জন্মনিবন্ধনের শতকরা হার ১৭.১%
অন্যান্য  
রাজবাড়ী জেলায় উন্নীত ০১.০৩.১৯৮৪ খ্রিঃ
প্রথম জেলা প্রশাসক জনাব সহিদ উদ্দিন আহমেদ
বর্তমান জেলা প্রশাসক জনাব মো: শওকত আলী
বিদ্যুতায়িত গ্রাম পিডিবি-৪৫৭  টি, 146 (WZPDCL)
রেল স্টেশন ৯ টি চালু, ৬ টি বন্ধ
রেলওয়ে জংশন ২ টি
সার্কিট হাউজ ১ টি
ডাকবাংলো ৪ টি
ডাকঘর ৬৮ টি
টেলিফোন একচেঞ্জ ৪ টি
টেলিফোন গ্রাহক ২২৪৯ টি
টিউবওয়েল গভীর- ৫৫১ টি, অগভীর- ১৭৯৮৪ টি
রাজবাড়ী-ঢাকা দুরত্ব ১২৫ কিঃ মিঃ
রাজবাড়ী-গোয়ালন্দ দুরত্ব ১৭ কিঃ মিঃ
রাজবাড়ী-পাংশা দুরত্ব ২৫ কিঃ মিঃ
রাজবাড়ী-বালিয়াকান্দি দুরত্ব ২৮ কিঃ মিঃ
ব্যাংক ৫৮ টি শাখা
নিবন্ধিত সমবায় সমিতি ৯৯৩ টি
শিল্প কারখানা বৃহৎ- ৩ টি, মাঝারী- ৬ টি, ক্ষুদ্র- ৭১২ টি,

কুটির শিল্প-৫,৫৬৫ টি

পশু হাসপাতাল ৫ টি
এলজিইডি কর্তৃক বাস্তবায়িত গ্রোথ সেন্টার ১৯ টি
দর্শনীয় স্থানঃ ১। কথা সাহিত্যিক মীর মশাররফ হোসেন স্মৃতি

কমপ্লেক্স

২। এক্রোবেটিক সেন্টার

৩। রাজবাড়ী সুইমিং পুল

৪। কুটি পাঁচুরিয়া জমিদার বাড়ী

৫। গোদার বাজার পদ্মা নদীর তীর

৬। রাজবাড়ী উদ্যান বেস

আদিবাসী বুনো, বিন্দি, বেহারা, বাগদী, কোল
দুর্যোগপ্রবণ এলাকা কিনা নদী ভাঙ্গনপ্রবণ এলাকা